1. [email protected] : Md. Munna Miah : Md. Munna Miah
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : Emad uddin Akash : Emad uddin Akash
  4. [email protected] : Peer Jubaer : Peer Jubaer
  5. [email protected] : Rayhan Ahmed : Rayhan Ahmed
  6. [email protected] : Sayad hussen sobuj : Sayad hussen sobuj
  7. [email protected] : Md. Usman Gani : Md. Usman Gani
  8. [email protected] : Zakaria Ahmed : Zakaria Ahmed
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন


নিতাই দাস, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ

১১ জুন ২০২১, ৪:০৯ অপরাহ্ণ

আমি কোনো টাকা আত্মসাৎ করিনি : চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন

  • প্রকাশিত : জুন, ১১, ২০২১, ৪:০৯ অপরাহ্ণ


    দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার দরগাপাশা ইউনিয়নের সিদখাই গ্রামে ২০২০-২১ অর্থ বছরের কাবিটা প্রকল্পের আওতায় সিদখাই গ্রামের মনু মিয়ার বাড়ি থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সড়ক পর্যন্ত কাজের জন্য বরাদ্দকৃত ২ লক্ষ ৬০হাজার টাকা অর্থ আত্মসাৎ করেছেন দরগাপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এই মর্মে কিছু অনলাইন ও দৈনিক পত্রিকায় ইহা নিউজ আকারে এসেছে যা অসত্য ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন।

    শুক্রবার(১১ জুন) সকালে একান্ত সাক্ষাৎকারে দরগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন বলেন, সিদখাই গ্রামবাসির বহুদিনের স্বপ্ন ছিল একটি রাস্তার। আমি মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে আলাপ করে রাস্তাটি নির্মাণ করে দিয়েছি। পরবর্তীতে মনু মিয়ার বাড়ি থেকে স্কুলের রাস্তা পর্যন্ত যে রাস্তা হয়েছে সে টাকাও মনু মিয়াকে দেয়া হয়েছে। মেম্বার সমুজ টাকা দেয়ার সময় আমাকে জানিয়েছেন। এবং মনু মিয়াও টাকা পেয়েছেন বলে আমাকে জানিয়েছেন।

    তিনি আরও বলেন, আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করছি ইউনিয়নবাসীর সেবা করার জন্য। কিন্তু সিদখাই গ্রামের রাস্তার কাজ নিয়ে মনু মিয়া টাকা না পাওয়ার মিথ্যাচার করছেন। আমাকে জড়িয়ে কিছু পত্রিকায় নিউজ হয়েছে যা অসত্য ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমি আদৌ এমন কাজের সাথে সম্পৃক্ত না। আমি কেমন মানুষ ইউনিয়নের মানুষ জানেন। সামনে নির্বাচন তাই কিছু মানুষ আমার জনপ্রিয়তা কমানোর জন্য এবং আমাকে হেয় করার জন্য অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছেন। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই।

    পিআইসির সভাপতি মেম্বার সমুজ আলী বলেন, আমি প্রকল্পের সব টাকা মনু মিয়াকে দিয়ে দিয়েছি। তিনি এখন আমার নামে মিথ্যাচার করছেন। আমার প্রতি তার আক্রোশ রয়েছে। গত নির্বাচনে তিনি আমার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন এবং পরাজিত হয়ে সুযোগ খুজছিলেন কিভাবে আমাকে হেনস্থা করা যায়। এর রেষ ধরেই রাস্তার কাজ করিয়ে সম্পূর্ণ টাকা দিলেও তিনি স্বীকার করছেন না। তিনি আমার নামে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমার বিরুদ্ধে তিনি অভিযোগ করেছেন।

    সমুজ আলী বলেন, আমি সবসময়ই চেয়ারম্যান সাহেবকে অবগত করে তাকে টাকা দিয়েছি। কিছু কুচক্রী মহল আমাকে হেয় করার জন্যই এমন কাজ করছে। আর দু/একদিন আগে পত্র/পত্রিকায় যে নিউজটি হয়েছে তা আদৌ সত্য নয়। আমি যত কাজ করিয়েছি এলাকাবাসী সাক্ষী সব ঠিকঠাকভাবে করিয়েছি।

    সিদখাই গ্রামের জাবেদ নামের একজন বলেন, চেয়ারম্যান সাহেব অনেক করেছেন আমাদের সিদখাই গ্রামের জন্য। আমরা জানি মনু মিয়ার বাড়ি থেকে স্কুলের রাস্তা পর্যন্ত যে প্রকল্পটি এসেছিল মনু মিয়া সে টাকা পেয়েছেন।

    সাইদুর নামের আরেকজন বলেন, আমরা সবাই জানি মনু মিয়া টাকা পেয়েছেন। মনু মিয়া নিজেও আমাকে বলেছিলেন টাকা পেয়েছেন এখন কেন অস্বীকার করছেন জানিনা।

    দরগাপাশা ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি জুনু মিয়া বলেন, মনু মিয়ার বাড়ি থেকে স্কুলের রাস্তা পর্যন্ত প্রকল্প হয়েছে জানি। শুনেছি মনু মিয়া টাকাও পেয়েছেন।


    facebook comments





















    © জেপি মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৮ - ২০২১