সর্বশেষ সংবাদ:
মিরপুর ইউপি নির্বাচন : ‘ক্লিন ইমেজ’র মোস্তাকের সঙ্গে পারলেন না ফয়জুর মিরপুর ইউপি নির্বাচন : চমক দেখিয়ে মেম্বার নির্বাচিত ছাত্রলীগ নেতা মাহবুব মিরপুর ইউপি নির্বাচন : আনারসে ডুবলেন কাদির স্বজন হারানোর বেদনা আমি বুঝি, আবরারের বাবা-মাকে প্রধানমন্ত্রী মিরপুর ইউপি নির্বাচন : ৮ কেন্দ্রে ১৭৭৭ ভোটে এগিয়ে আনারস ৫ কেন্দ্রে আনারস ২৫০৩, নৌকা ১৫১৩ মিরপুর ইউপি নির্বাচন : আটঘরে জিতল আনারস শিশু তুহিন হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে কাজী সমিতির সভা অনুষ্ঠিত মিরপুর ইউপি নির্বাচন : গড়গড়িতেও জিতলেন শেরীন মিরপুর ইউপি নির্বাচন : চাঁদবোয়ালীতে আনারসের বিপুল ভোটে জয় দিরাইয়ের শিশু হত্যার নেপথ্যে ‘পারিবারিক বিরোধ’, বাবা-চাচাসহ আটক ৬ শিশু তুহিনের শরীরে বিদ্ধ ছুরিতে দুইজনের নাম আবরারের বাবা, মা ও ভাই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গণভবনে গিয়েছেন। টাকার জন্য বন্ধুর স্ত্রী ও কন্যাকে খুন, ঘাতক গ্রেফতার প্রেমের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ছুড়িকাঘাত মিরপুর ইউনিয়ন নির্বাচন : ব্যালট বক্স নিয়ে নৌকা সমর্থকের পালানোর চেষ্টা মীরপুর ইউনিয়ন নির্বাচন বয়কট করলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবদুল কাদির মিরপুর ইউপি নির্বাচন : পুলিশ ও আনসারকে পেটালো নৌকার সমর্থক মা-সন্তানকে হত্যা করে বিকাশের ৮ লাখ টাকা লুট দিরাইয়ে ৫বছরের শিশুকে নৃশংস ভাবে খুন

হবিগঞ্জে বলাৎকারে ব্যর্থ হয়ে শিশুকে হত্যা, যুবকের যাবজ্জীবন

হবিগঞ্জ সংবাদদাতা ::হবিগঞ্জের লাখাইয়ে শিশু রুবেল মিয়াকে (৯) বলাৎকারে ব্যর্থ হয়ে হাত-পা বেঁধে পানিতে ফেলে হত্যার দায়ে রায়হান মিয়া ওরফে জাবেদ রায়হান (৩১) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও পাঁচ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এসএম নাসিম রেজা এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত রায়হান মিয়া ওরফে জাবেদ রায়হান উপজেলা ধর্মপুর গ্রামের আব্দুল হাইয়ের পালিত ছেলে।

আদালতের পরিদর্শক মো. আল-আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রায়হান মিয়া রমনা থানার শিকদার বাড়ি এলাকার শাহজাহান মোল্লার ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, রায়হান লাখাই উপজেলার ধর্মপুর গ্রামের আব্দুল হাইকে বাবা ডেকে সেখানেই বসবাস করে আসছিলেন। ২০০৩ সালের ৮ আগস্ট একই গ্রামের শরীফ মিয়ার ছেলে রুবেলকে মাছ ধরার কথা বলে নৌকায় করে পার্শ্ববর্তী হাওরে নিয়ে বলাৎকারের চেষ্টা চালায় সে। এ সময় শিশু রুবেল চিৎকার শুরু করলে রায়হান ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাত-পা বেঁধে পানিতে ফেলে দেয় রায়হান। ঘটনার তিনদিন পর হাওরে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা।

১১ আগস্ট মরদেহ উদ্ধারের পর রুবেলের বাবা বাদী হয়ে রায়হানকে একমাত্র আসামি করে লাখাই থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২০০৫ সালের ৫ অক্টোবর লাখাই থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহজাহান মিয়া তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। হত্যাকাণ্ডের দীর্ঘ ১৬ বছর পর ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আজ এ রায় দেন।

হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক জানান, রায় ঘোষণার পর নিহত রুবেলের পরিবার সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

এ জাতীয় আরও সংবাদ 👇