জামালগঞ্জের চুরি হওয়া শিশু ৩ দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ: আটক ৩

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় একটি শিশুকে চুরি করে বিক্রি করে দেওয়ার তিনদিন পর ঐ শিশুটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত জোবেদা খাতুন ও মাবেল মিয়া ও কবির হোসেন নামে তিনজন আটক করেছে পুলিশ।

 

শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্র মিডিয়ার সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে এক প্রেস ব্রিফিং করেন।

 

তিনি বলেন, গত ১৩ আগস্ট সন্ধ্যায় জামালগঞ্জ উপজেলার ল²ীপুর গ্রামের অনুমিয়া ও ফাহমিদা দম্পতির সাড়ে তিন বছর বয়সের ছেলে সন্তান রাফসান মিয়াকে বাবা মায়ের অনুপস্থিতির সুযোগে ঘুমন্ত অবস্থায় চুরি করে নিয়ে যায় জোবেদা খাতুন ও মাবেল মিয়া ।

 

পরদিন চুরি যাওয়া শিশুটিকে সদর উপজেলার সর্দারপুর গ্রামের একটি বাড়িতে স্ট্যাম্পে লিখিত দিয়ে রামনগর গ্রামের কবির হোসেনের কাছে ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জামালগঞ্জ থানা পুলিশের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে রামনগনর গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাবেল মিয়া ও জোবেদা খাতুন শিশুটিকে চুরি করে বিক্রি করার অভিযোগ স্বীকার করেছে।

 

চুরি যাওয়া শিশুটির বাবা মা জানান, বসত ঘরের বিছানায় ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের ছেলেকে চুরি করে নিয়ে যায় ল²ীপুর গ্রামের মাবেল মিয়া ও জোবেদা খাতুন।

 

ভক্সপপ: শিশুটির বাবা ও মা চুরি যাওয়া শিশুর বাবা মা।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, শিশুটিকে চুরি করে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে জোবেদা ও মাবেল মিয়া। এই ঘটনাটি পুলিশের নজরে আসার পর থেকে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা গোপনে অভিযানে নামে এবং ঘটনার তিনদিন পরে রামনগর গ্রামে পুলিশ অভিযান চালিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং এ ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়। 

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন 👎👎👎

এ জাতীয় আরও সংবাদ 👇